ঢাকাশুক্রবার , ২২ ডিসেম্বর ২০২৩
  1. অনান্য
  2. অপরাধ ও আইন
  3. অভিবাসীদের নির্মম জীবন
  4. অর্থনীতি
  5. আত্মসাৎ
  6. আন্তর্জাতিক
  7. ইতিহাস
  8. উদ্যোক্তা
  9. এশিয়া
  10. কৃষি
  11. ক্যাম্পাস
  12. খেলাধুলা
  13. গণমাধ্যম
  14. গল্প ক‌বিতা
  15. চট্টগ্রাম বিভাগ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধা।

অনলাইন ডেস্ক
ডিসেম্বর ২২, ২০২৩ ৮:৩২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নতুন শিক্ষা কারিকুলাম পরিবর্তন ও একতরফা নির্বাচন বাতিলের দাবিতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের বিক্ষোভ মিছিলে বাধা দিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার (২২ ডিসেম্বর) বাদ জুমা বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে সমাবেশ শেষে মিছিল বের করেন ইসলামী আন্দোলনের নেতাকর্মীরা। মিছিল নিয়ে পল্টন মোড়ের দিকে যেতে চাইলে পুলিশ তা আটকে দেয়। এ সময় নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। একপর্যায়ে ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রীয় ও মহানগর নেতাদের হস্তক্ষেপে কর্মীরা শান্ত হলে সেখানে দলের মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে মিছিল শেষ করা হয়।

বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশি বাধার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ইউনুছ আহমাদ বলেন, মিছিল-সমাবেশ করার নাগরিক অধিকার কেড়ে নেওয়া হলে জনতা বিকল্প পথে হাঁটতে বাধ্য হবে এবং এর সব দায়-দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে।

এর আগে, ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ কমিটির উদ্যোগে সমাবেশ করা হয়। ঢাকা উত্তরের সভাপতি প্রিন্সিপাল মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দলটির মহাসচিব ইউনুছ আহমাদ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, যুগ্ম মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম। প্রধান বক্তা ছিলেন সহকারী মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ ইমতিয়াজ আলম।

মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, তামাশার নির্বাচন বন্ধ করে দেশ বাঁচাতে আওয়ামী লীগের ক্ষমতার লালসার বিরুদ্ধে জনগণকে রাজপথে নেমে আসতে হবে। গণবিরোধী এ তফসিল অবিলম্বে বাতিল করতে হবে। সংসদ ভেঙে দিয়ে জাতীয় সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে। দেশের জনগণ এ অবৈধ তফসিল মানে না। দেশবাসী অবৈধ এ তফসিলের বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছে। ক্রমান্বয়ে রাজপথ আরও উত্তপ্ত হচ্ছে।

মাওলানা মুহাম্মদ ইমতিয়াজ আলম বলেন, শেখ হাসিনা নির্বাচনের নামে নাটক মঞ্চস্থ করতে যাচ্ছে। নাটক করতে মন চাইলে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বাণিজ্য থেকে উত্তোলন করা টাকা দিয়ে করেন। জনগণের টাকা দিয়ে কোনো নাটক করবেন না। উন্নয়নের নামে জনগণকে ধোকা দেওয়া হচ্ছে। এসব উন্নয়ন সরকারের মন্ত্রী-এমপিরা চিবিয়ে খেলেই হয়। জনতার অধিকার নিয়ে আর ছিনিমিনি খেলবেন না। নতুন শিক্ষা কারিকুলাম বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর সেন্টিমেন্ট বিরোধী। এ কারিকুলাম বাতিল করতে হবে।

মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন, নির্বাচন কমিশন সভা-সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে সংবিধান লঙ্ঘন করেছে। ৭ তারিখে নির্বাচন নয়, আওয়ামী কাউন্সিল হতে পারে। দলের টাকা খরচ করে কাউন্সিল করেন আপত্তি নেই। কিন্তু, দেশের টাকা খরচ করে নিবার্চনের নামে তামাশা করতে দেওয়া হবে না। ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে ৭ তারিখের সার্কাস খেলা বন্ধ করা হবে।

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন- অ্যাডভোকেট এম হাসিবুল ইসলাম, মাওলানা আরিফুল ইসলাম, অধ্যাপক নাসির উদ্দিন খান, ডা. মুহাম্মদ শহীদুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ মশিউর রহমান, ছাত্রনেতা শরিফুল ইসলাম রিয়াদ, সেক্রেটারি ডা. শহীদুল ইসলাম, কে এম শরীয়াতুল্লাহ, মাওলানা মুহাম্মদ মাকসুদুর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার মুরাদ হোসেন, মুফতি হাফিজুল হক ফাইয়াজ, ইউসুফ পিয়াস মাইদুল হাসান সিয়াম প্রমুখ।

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল অপরাজিতবাংলা ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন oporajitobangla24@yahoo.com ঠিকানায়।